ওমান রুটে বড় উড়োজাহাজ চালু : চট্টগ্রাম সমিতির ‘ধন্যবাদ’

প্রায় ৬ মাস বন্ধ থাকার পর গত শনিবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) থেকে ওমানের মাস্কাট রুটে বাংলাদেশ বিমানের বড় উড়োজাহাজ চালু হওয়ায় সরকারকে ধন্যবাদ জানিয়েছে প্রবাসী সংগঠন ‘চট্টগ্রাম সমিতি - ওমান’।

গতকাল সোমবার চট্টগ্রাম সমিতির সভাপতি মোহাম্মদ ইয়াছিন চৌধুরী সিআইপি ও সাধারণ সম্পাদক তাপস বিশ্বাস স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়।  

সমিতির প্রচার সম্পাদক বাবুল চৌধুরীর পাঠানো বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, নতুন করে ওমান রুটে দেওয়া হয়েছে ২৭১ আসনের বোয়িং ৭৮৭ ড্রিমলাইনার। শনিবার ছাড়া সপ্তাহে ৬ দিন চলবে ড্রিমলাইনার। এর মধ্যে ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম হয়ে তিনদিন, সিলেট হয়ে একদিন এবং সরাসরি ২ দিন চলাচল করবে। 

লাশ ও অসুস্থ যাত্রী পরিহন এবং ব্যাগেজ জটিলতা নিরসনে মাস্কাট রুটে বাংলাদেশ বিমানের বড় উড়োজাহাজ চালুর জন্য ‘চট্টগ্রাম সমিতি - ওমান’ এর আহ্বানের প্রেক্ষিতে বিমান প্রতিমন্ত্রীর নির্দেশ এ উদ্যোগ নিয়েছে বাংলাদেশ বিমান কর্তৃপক্ষ।

গত বছরের মধ্য জুলাইয়ে হজ্বের জন্য এ রুটে বিমানের বড় উড়োজাহাজ বন্ধ রাখা হয়। হজ্ব শেষে তা চালুর কথা থাকলেও তা আর হয়নি। দেওয়া হয় বোয়িং ৭৩৭ ছোট পরিসরের উড়োজাহাজ। ফলে গত ৬ মাস দুর্ভোগে পড়ে প্রায় ৮ লাখ ওমানপ্রবাসী বাংলাদেশি। হিমঘরে লাশ আর হাসপাতালে অপেক্ষায় থাকা অসুস্থ প্রবাসীদের তালিকা দীর্ঘ হতে থাকে।

এ বিষয়ে গত ২৮ জানুয়ারি ঢাকায় বাংলাদেশ সচিবালয়ে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব নিয়োজিত প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলীর সাথে বৈঠক করে চট্টগ্রাম সমিতি - ওমানের প্রতিনিধি দল। বৈঠকে ওমানপ্রবাসীদের দুর্ভোগ নিরসনে বড় উড়োজাহাজ চালুর জোরালো আবেদন জানায় সমিতি। 

এ সময় এনআরবি-সিআইপি অ্যাসোসিয়েশনের নেতারাও ওমানবাসীর দাবির প্রতি সমর্থন জানান। পরিস্থিতি বিবেচনায় প্রতিমন্ত্রী বড় উড়োজাহাজ দ্রুত চালুর আশ্বাস দেন এবং ব্যবস্থা নিতে বাংলাদেশ বিমান কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেন।

বাংলাদেশ বিমানের মাস্কাট কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, দীর্ঘ সারি কমাতে সবোর্চ্চ কর্তৃপক্ষের নির্দেশে প্রাথমিক পর্যায়ে প্রতি ফ্লাইটে প্রবাসীদের ৩টি লাশ দেশে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

মাইগ্রেশননিউজবিডি.কম/সাদেক ##

share this news to friends